অস্বাভাবিক উঁচু এ জোয়ারের পানিতে প্লাবিত সুন্দরবন

ন।

করমজল বন্য প্রাণী প্রজননকেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আজাদ কবির বলেন, কদিন ধরেই সুন্দরবনের সব নদ-নদীতে জোয়ারের পানির চাপ বেশি। দিন ও রাতে দুবার প্লাবিত হচ্ছে বনের অধিকাংশ এলাকা। এর মধ্যে রোববার দুপুরে সুন্দরবনে সবচেয়ে বেশি পানি হয়েছে। এর আগে তিন ফুট উচ্চতার জোয়ারে সুন্দরবন প্লাবিত হলেও, আজ চার ফুট পানিতে তলিয়েছে বন্য প্রাণী প্রজননকেন্দ্রসহ পুরো বন। বনের অভ্যন্তরে স্বাভাবিক জোয়ারের চেয়ে উঁচু জোয়ারের কারণে বন্য প্রাণী উঁচু জায়গায় আশ্রয় নিয়েছে।

বনের অভ্যন্তরে অস্বাভাবিক পানি বাড়ায় বন্য প্রাণীর আবাসস্থল তলিয়ে ক্ষতির শঙ্কা করছেন সংশ্লিষ্টরা। তবে এখন পর্যন্ত বনের কোথাও তেমন কোনো প্রাণী ভেসে যাওয়া বা ক্ষতির খবর পাওয়া যায়নি।

মোংলা আবহাওয়া অফিসের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা অমরেশ চন্দ্র ঢালী বলেন, বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট নিম্নচাপের প্রভাবে দেশের উপকূলীয় জেলাগুলোয় ঝোড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। সেই সঙ্গে থাকবে বৃষ্টি। পূর্ণিমা ও বায়ুচাপের তারতম্য বেশি হওয়ায় দুই থেকে চার ফুট উঁচু জলোচ্ছ্বাস হতে পারে।

বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট নিম্নচাপ ও পূর্ণিমা তিথির জোয়ারে প্লাবিত হয়েছে সুন্দরবন ও আশপাশের অঞ্চল। রোববার দুপুরে সুন্দরবনের করমজল কেন্দ্রে
বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট নিম্নচাপ ও পূর্ণিমা তিথির জোয়ারে প্লাবিত হয়েছে সুন্দরবন ও আশপাশের অঞ্চল। রোববার দুপুরে সুন্দরবনের করমজল কেন্দ্রে ছবি: প্রথম আলো

মোংলা আবহাওয়া অফিস সূত্রে জানা যায়, নিম্নচাপের কারণে দমকা হাওয়াসহ সুন্দরবন অঞ্চলে বৃষ্টি বেড়েছে। রোববার সকাল ছয়টা থেকে বেলা তিনটা পর্যন্ত মোংলায় ২৪ মিলিমিটার বৃষ্টি রেকর্ড করা হয়েছে। বৃষ্টি আরও বাড়তে পারে।

Leave a Comment