সব কিছুই আইসিসির নিয়ন্ত্রণে: তাসকিন

বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভে ভারতের বিপক্ষে বাংলাদেশের মাত্র ৫ রানে পরাজয়ের দুঃস্মৃতি বারবার মানসপটে চলে আসছে। ক্রীড়ামোদীরা বলছেন, সঠিক আম্পায়ারিং হলে বাংলাদেশ জিতত। ভেজা মাঠে বাংলাদেশকে নামিয়ে দেওয়া, কোহলির নো বল কলসহ বিরাট কোহলির ফেক ফিল্ডিংয়ের বিষয়টি নিয়ে তুমুল চর্চা চলছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। কোহলির সেই কাণ্ডকে প্রতারণা আখ্যা দিয়ে অনেকে ৫ রানের পেনাল্টি দাবি করেছেন আইসিসির কাছে।

এ নিয়ে ক্ষোভে ফুঁসলেও সরাসরি কোনো মন্তব্য আসেনি বাংলাদেশ অধিনায়ক সাকিব আল হাসান কিংবা দলের কোনো সদস্যের মুখ থেকে। কারণ এ নিয়ে মন্তব্য করে বিতর্কের আগুনে ঘি ঢাললে হিতে বিপরীত হতে পারে। আইসিসির কোড অব কন্ডাক্ট অনুযায়ী জরিমানার মুখে পড়তে হতে পারে ক্রিকেটারদের।

যে কারণে সংবাদমাধ্যমের সামনে এসে অভিযোগ আকারে মুখ খুলেননি পেসার তাসকিন আহমেদও। সেসব প্রসঙ্গ এড়িয়ে তিনি জানিয়েছেন— সব কিছুই আইসিসির নিয়ন্ত্রণে।

সুপার টুয়েলভে নিজেদের শেষ ম্যাচে পাকিস্তানের বিপক্ষে আগামী ৬ নভেম্বর মাঠে নামবে বাংলাদেশ। ম্যাচের আগে অ্যাডিলেডের কারেন রল্টন ওভালে অনুশীলনের সময় গণমাধ্যমের মুখোমুখি হন তাসকিন।
সেখানে ভারত ম্যাচে কোহলির কাণ্ডসহ বিতর্কিত বিষয় নিয়ে প্রশ্ন তুলেন সাংবাদিকরা।

জবাবে তাসকিন বলেন, ‘আসলে এটি তো আমাদের নিয়ন্ত্রণে নেই। আম্পায়ারদের সিদ্ধান্ত, কিছু জিনিস দেখলাম যে সমালোচনা হচ্ছে। ফেক থ্রো বা অন্যান্য জিনিস ওগুলো আসলে সম্পূর্ণ আমাদের নিয়ন্ত্রণের বাইরে। সেগুলো নিয়ে আসলে চিন্তা করে লাভ নেই। তার থেকে বড় জিনিস ওই ম্যাচটি এখন অতীত। তো সামনের যে ম্যাচটি আছে ওটা নিয়েই চিন্তা করতে চাই। অবশ্যই আইসিসির ইভেন্ট সব কিছুই আসলে তাদের নিয়ন্ত্রণে। তারা যে সিদ্ধান্ত দিয়েছে ওই সময়ে, সেটি তাদের ব্যাপার। তাসকিনের মন-মগজে এখন পরের ম্যাচ, সেমিফাইনাল নিশ্চিতের ভাবনা।

এ পেসার বললেন, দেখুন, যদিও কিছু হলে হয়তো আমাদের জন্যই ভালো হতো। যেহেতু এটি এখন আর ফেরত আনতে পারব না, তাই এটি নিয়ে আর ভাবছি না। লক্ষ্য থাকবে সামনের ম্যাচে সেরাটা দিয়ে ভালো করার।

Leave a Comment